Melbondhon
এখানে আপনার নাম এবং ইমেলএড্রেস দিয়ে রেজিস্ট্রেশন করুন অথবা নাম এবং পাসওয়ার্ড দিয়ে লগইন করুন
widgeo

http://melbondhon.yours.tv
CLOCK
Time in Kolkata:

হানাফী মাযহাবের প্রতিষ্টাতা ইমাম আবু হানিফা নন

Go down

হানাফী মাযহাবের প্রতিষ্টাতা ইমাম আবু হানিফা নন Empty হানাফী মাযহাবের প্রতিষ্টাতা ইমাম আবু হানিফা নন

Post by imam1979 on 2011-07-15, 21:11


বাংলাদেশ ইসলামিক ফাউন্ডেশন থেকে প্রকাশিত ‘কারবালা-একটি সামাজিক ঘুর্নাবর্ত’(লেখকঃমনিরউদ্দিন ইউসুফ)পড়ে যা জানা গেলঃ
…………..আব্বাসীয় আমলটা ছিল নানা দিক দিয়েই গুরুত্বপুন।এই আমলের শুরু থেকে
শেষ পর্যন্ত বিভিন্ন মতবাদ রুপ লাভ করে;সুফি ও শরিয়তের ইমামগন আত্নপ্রকাশ
করতে থাকেন;বিভিন্ন জ্ঞান-বিজ্ঞানের অনুবাদ হয় আরবীতে;গ্রিক দর্শন ইসলামি
চিন্তার উপর গভীর ও সুদুরপ্রসারী প্রভাব বিস্তার করে।এই সময়ের মধ্যেই
ইসলামি সমাজ,রাষ্ট ও চিন্তা রুপ পরিগ্রহ করে,তাকে অনুসরন করেই শতাব্দীর পর
শতাব্দী ধরে মুসল্মান গদ্দালিকা প্রবাহে ভেসে চলে।সংক্ষিপ্ত আকারে হলেও
আমরা সেসব অবস্থার রুপ ও পরিনতি কি হয়েছিল তা দেখার চেষ্টা করবো।
২য় আব্বাসীয় খলিফা মনসুরের সময় ইমাম আবু হানিফা(রঃ) ইসলামের অবিকৃ্ত রুপ
ও তার সমাজ-ব্যাবস্থার পরিবর্তনের উপর মত প্রকাশ করেন।আবু হানিফার
জনপ্রিয়তা ও প্রভাব দেখে মনসুর তাকে নিজের কুক্ষিগত করার প্রয়াসে
বাগদাদের প্রধান বিচারপতির পদ প্রদান করেন।আবু হানিফা এই প্রস্তাব অস্বীকার
করায় মনসুর তাকে কারারুদ্ব করেন;কারাগারেই তার মৃত্যু হয়।সুন্নি মতবাদের
আর একজন প্রচারক ইমাম মালিক(রঃ)কেও বেত্রাঘাতে জর্জরিত করে কারাগারে
নিক্ষেপ করা হয়।এভাবে কুরান ও রাসুল্লাহর অনুশারী দুজন শরিয়াতের ইমামের
মুখ বন্ধ করে দেয়া হয়।এই সময় মদীনায় খাঁটি ইসলামি চিন্তার দার্শনিক ও
মর্মগত দিক ব্যাখ্যা করে চলেছেন ইমাম জাফর সাদেক(আঃ)।হজরত আলী(আঃ)র
প্রপৌত্রের এমন ধর্ম ব্যাখ্যা মনসুরকে বিচলিত করলো।মনসুর জাফর সাদেককে
রাজসভায় আহবান করে তাঁকে হত্যা করার সংকল্প করলেন।কিন্তু জাফর সাদেকের
সঙ্গে কথা বলে খলিফা যখন বুঝতে পারলেন যে সাধকের প্রচেষ্টা প্রধানত সামাজিক
নয়,ব্যাক্তিক আত্নিক উতকর্ষেরই তিনি প্রচারক,তখন জাফরকে তাঁর অবস্থার উপর
ছেড়ে দেয়াই তার কাছে যুক্তিযুক্ত বলে বিবেচিত হয়।তবে মনসুর একথাও বুঝতে
পারলেন যে,তার রাজবংশের ঞ্ছায়িত্বের জন্য প্রয়োজন এক সুদৃঢ় মতবাদের।সেই
মতবাদ কুরান ও সুন্নাহকে এমন ভাবে ব্যাখ্যা করবে যা তার স্বার্থের
প্রতিকুল নয়।তেমন মতবাদ তিনি তার আইনজ্ঞদের দ্বারা করিয়ে নিলেন ও সেই
মতবাদের নাম দিলেন সুন্নী মতবাদ।এই মতবাদের মধ্যে নবী-বংশের দাবীর কথা যেমন
নেই,তেমনি রাসুল্লাহ(সাঃ) ও তাঁর অব্যবহিত পরবর্তী ২ খলিফার কালের সমাজ
ব্যাবস্থার কথাও নেই।পরবর্তি খলিফা হারুনুর রশিদের সময়ে সাম্রাজ্যের
প্রধান বিচারপতি আবু ইউসুফের নেতৃ্ত্বে এক আইনজ্ঞ দলের সহায়তায় ইমাম আবু
হানিফার নাম দিয়ে হানাফী মাযহাবের ধর্মীয় বিধি সুস্পষ্ট আকার ধারন করতে
থাকে,তাতেও ব্যাক্তিগত আচার অনুষ্ঠান ও এমন সামাজিক সমস্যা প্রাধান্য লাভ
করে,যাতে রাজবংশের স্থায়িত্ব ও সমাজের সামন্তবাদী প্রকৃ্তিতে পরিবর্তন
করার কোন প্রচেষ্টার ইঙ্গিত মাত্র নেই।পরবর্তী মাযহাবগুলিকেও এমনিভাবে
রাজতন্ত্রের ও সামন্ততন্ত্রের পরিপোষক রুপে ছাটাই করে তবে ছাড়পত্র দেয়া
হয়।


imam1979
আমি আন্তরিক
আমি আন্তরিক

পোষ্ট : 32
রেপুটেশন : 6
নিবন্ধন তারিখ : 15/07/2011

Back to top Go down

Back to top


 
Permissions in this forum:
You cannot reply to topics in this forum